২রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ| ১৫ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ| ৬ই শাওয়াল, ১৪৪৫ হিজরি| সকাল ৮:৩০| গ্রীষ্মকাল|
Title :
অবশেষে মুক্তি পেল জিম্মি জাহাজ এমভি আবদুল্লাহ ও ২৩ নাবিক পহেলা বৈশাখ অর্থাৎ বাংলা নববর্ষ উদযাপন বাঙালির অসাম্প্রদায়িক ও সার্বজনীন উৎসব- তারেক শামস খান হিমু কলমাকান্দায় সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের তিনজনের মৃত্যু মাহে রমজানের আত্মশুদ্ধির মহান দীক্ষার মধ্য দিয়ে আসে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের আনন্দঘন মুহূর্ত – তারেক শামস খান হিমু মুজিবনগর সরকার গঠন ও স্বাধীনতার ঘোষণা পত্র মূলত আন্তর্জাতিক মহলে স্বাধীন বাংলাদেশের পূর্ণাঙ্গ বহিঃপ্রকাশ – তারেক শামস খান হিমু যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় অটোরিকশাচালক নিহত ঠাকুরগাঁও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ আপেলের যোগদান মাটিরাঙ্গা জোনের উদ্যোগে মানবিক সহায়তা প্রদান মা ও শিশু সংস্থা ফ্লোরিডা (USA)ও স্বপ্নের সিঁড়ি সমাজ কল্যান সংস্থার মাধ্যমে পবিত্র মাহে রমজানের ইফতার ও ঈদ সামগ্রী বিতরণ। শতাধিক সুবিধাবঞ্চিত, শিশুদের ঈদের নতুন জামা আর সালামী দিয়ে মুখে হাসি ফোটালো ‘আমাদের প্রিয় সৈয়দপুর’

বেগমগন্জে স্কুলছাত্রীকে ৩ মাস আটক রেখে গণধর্ষণ

মোঃ ইকবাল মোরশেদ :: স্টাফ রিপোর্টার
  • Update Time : সোমবার, নভেম্বর ১৫, ২০২১,
  • 70 Time View

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের মিরওয়ারিশপুর ইউনিয়নের মীর কাশেম উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির এক ছাত্রী (১৫)কে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে দুর্বৃত্তরা। পরে নোয়াখালীর ছাতারপাইয়া ও টাঙ্গাইলের শহিদপুরে ৩ মাস ধরে আটক রাখে। স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণের ভিডিও ধারণ করে। এ ঘটনায় মামলা করলে ভিডিও ভাইরাল এবং ধর্ষিতাকে হত্যার হুমকি দেয় ধর্ষকরা।

এ ঘটনায় রোববার ওই কিশোরী বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। বেগমগঞ্জ মডেল থানায় দায়ের করা এজাহার সূত্রে জানা যায়, পূর্ব থেকে সন্ত্রাসী গ্রুপ স্কুলে যাওয়া-আসার পথে তাকে উত্ত্যক্ত করতো। এ ব্যাপারে সে তার খালাকে জানালে সন্ত্রাসীরা আরও ক্ষেপে যায়।
এরই জের ধরে গত ২৬শে আগস্ট সকাল ১০টায় ভিকটিম মীর কাশেম স্কুলে যাওয়ার সময় স্থানীয় মজুমদার হাটের উত্তর পাশে পৌঁছলে আবু নাছেরের বাড়ির সামনে থেকে নরোত্তমপুর গ্রামের আবদুল্লাহ আল মামুন (২৮), একই গ্রামের কামাল (৪৬), নাছের (২৫), হাজীপুর পাঁচ বাড়ির ফরহাদ (২৭)কে অপহরণ করে সিএনজিযোগে সেনবাগ থানার ছাতারপাইয়ার এক ব্যক্তির বাড়িতে নিয়ে আটকে রাখে।
এ সময় আবদুল্লাহ আল মামুন ও কামাল তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। দুইদিন পর ২৮শে সেপ্টেম্বর দুপুর ১২টায় সেখান থেকে তাকে সোনাইমুড়ি হয়ে টাঙ্গাইল শহিদপুর গ্রামের এক বাড়িতে নিয়ে আটকে রাখে।
ওই বাড়িতে কামাল, নাছের ও ফরহাদ আবারো তাকে গণধর্ষণ করে। স্থানীয় অজ্ঞাত যুবকদের এনেও তাকে ধর্ষণ করায়। এভাবে চলতে থাকে। এতে কিশোরী অজ্ঞান হয়ে পড়লে ওষুধ খাইয়ে একটু সুস্থ করে পুনরায় পালাক্রমে ধর্ষণ করতো। গত শনিবার (১৩ই নভেম্বর) ভিকটিম কৌশলে পালিয়ে বাড়ি চলে আসে। একটু সুস্থ হয়ে রোববার বেগমগঞ্জ থানায় এজাহার দায়ের করে। এদিকে রোববার ভিকটিম নোয়াখালী জেলা আইনজীবী সমিতি ভবনে তার আইনজীবী সিনিয়র এডভোকেট কাজী মীর হোসেন ও জেলা সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর এডভোকেট মোশাররফ হোসেনকে দিয়ে
যখন এজাহার লেখাচ্ছিলেন তখনও টেলিফোনে ধর্ষকরা ভিকটিমের মোবাইলে ফোন করে মামলা না করতে হুমকি দেয়।
তারা বলে- মামলা করলে তাকে দুনিয়া থেকে সরিয়ে ফেলবে। ধর্ষণের ভিডিও ভাইরাল করবে।
সিনিয়র আইনজীবী কাজী মীর হোসেন এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,

এ জঘন্য ঘটনার বিচার হওয়া দরকার। বেগমগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মীর জাহিদুর রহমান রনি বলেন, ভিকটিমের এজাহার পেয়েছি, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবো। এ রিপোর্ট লেখার সময় পর্যন্ত আসামিরা গ্রেপ্তার হয়নি।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category