১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ| ২৬শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ| ১৮ই জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি| সন্ধ্যা ৬:১১| গ্রীষ্মকাল|

ঐতিহাসিক পদ্মা সেতু উদ্বোধনের মূলমঞ্চে নাগরপুরের তারেক শামস খান হিমু।

কাজী মোস্তফা রুমি, প্রধান নির্বাহী সম্পাদক:
  • Update Time : শনিবার, জুন ২৫, ২০২২,
  • 47 Time View

আজ ২৫শে জুন ২০২৩, শনিবার।

নানারকম চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে, দেশি-বিদেশি ও আন্তর্জাতিক চক্রান্ত,ষড়যন্ত্র ছিন্ন করে নিজস্ব অর্থায়নে তৈরিকৃত বাঙালি জাতির শ্রেষ্ঠ স্থাপনা ঐতিহাসিক পদ্মা সেতুর শুভ উদ্বোধন করলেন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীন বাংলার স্থপতি, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ নেতা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য তনয়া গণতন্ত্রের মানস কন্যা, মাদার অফ হিউম্যানিটি, ডটার অফ পিস, বাঙালি জাতির শান্তির অগ্রদূত, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রী, দেশরত্ন শেখ হাসিনা।

আর এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মূল মঞ্চে উপস্থিত হয়েছিলেন দক্ষিণ টাঙ্গাইলের লৌহ মানব, নাগরপুর-দেলদুয়ারের গণমানুষের নেতা, রাজপথ কাঁপানো তুখোড় সাবেক ছাত্রনেতা, অনলবর্ষী বক্তা, বিএনপি-জামায়াত জোট সন্ত্রাসীদের ত্রাস, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার সিপাহসালার অন্যতম বিশ্বস্ত সৈনিক, স্বাধীনতা পরবর্তী নাগরপুরের সাড়ে তিন লক্ষ মানুষের প্রাণের দাবি ধলেশ্বরী সেতু বাস্তবায়ন কমিটির সাবেক প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় ক্রীড়া উপকমিটির অন্যতম সহ-সম্পাদক, টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামীলীগের বিপ্লবী সংগ্রামী সম্মানিত সদস্য, নাগরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য জননেতা তারেক শামস খান হিমু।

স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধনের মূলমঞ্চে উদ্বোধনী অভিবাদন ব্যাচ পরিয়ে তাকে বরণ করে নিয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা।

গণমাধ্যমকে এক বার্তায় তারেক শামস খান হিমু বলেন, আজ বাঙালি জাতির একটি স্বপ্ন বাস্তবায়ন হলো। যা সম্ভব হয়েছে শুধুমাত্র জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য তনয়া মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার অসাধারণ দূরদর্শিতা ও বুদ্ধিমত্তার জন্য। যেভাবে দেশি-বিদেশি, আন্তর্জাতিক মহল যে চক্রান্ত করেছিল তাতে কোনো ভাবেই পদ্মা সেতু বাস্তবায়ন হওয়া সম্ভব ছিল না। শুধুমাত্র মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা মেধা ও দূরদর্শিতার জন‍্য এই সেতু আজ আমরা উদ্বোধন করতে পারলাম । আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সকল নেতৃবৃন্দ বিশেষ করে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে টাঙ্গাইলের নাগরপুর- দেলদুয়ারের জনগণের পক্ষ থেকে অসংখ্য অসংখ্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। সত্যি এই সেতু বাস্তবায়নের জন্য তার অবদান বাংলার ইতিহাসে চিরদিন স্বর্ণাক্ষরে লিপিবদ্ধ থাকবে। আমি এবং আমার টাঙ্গাইলের নাগরপুর-দেলদুয়ারের সকল জনগণ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা করছি, ধন্যবাদ।

জয় বাংলা

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category